Press Release

 
Image

Uploaded: 27/Oct/2021

Title: 1st market maker for stock market in Bangladesh

Description: Be Rich Ltd got approval as 1st market maker for stock market in Bangladesh

Image

Uploaded: 27/Oct/2021

Title: Be Rich Ltd got approval for DSE Trading right.

Description: Be Rich Ltd got approval for DSE Trading right in Bangladesh.

Image

Uploaded: 28/Oct/2021

Title: আরো দু’টি ‘ডিজিটাল বুথ’ খোলার অনুমতি পেয়েছে বি রিচ

Description: দেশের অভ্যন্তরে ব্রোকারেজ হাউজের শাখা হিসেবে আরো নতুন দু’টি ‘ডিজিটাল বুথ’ খোলার অনুমোদন পেয়েছে ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের সদস্যভুক্ত প্রতিষ্ঠান বি রিচ লিমিটেড।

News about Be Rich

  

  31/Aug/21
  Source: kalerkantho.com
  পুঁজিবাজারে ‘মার্কেট মেকার’ ভূমিকায় অবতীর্ণ হবে বি রিচ

  

দেশের পুঁজিবাজারে প্রথম বাজার সৃষ্টিকারী তথা মার্কেট মেকার লাইসেন্স পেতে চলেছে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ট্রেকহোল্ডার বি রিচ লিমিটেড। পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) প্রতিষ্ঠানটিকে এই লাইসেন্স দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গত রবিবার অনুষ্ঠিত বিএসইসির ৭৮৯তম কমিশন সভায় এই অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

জানা গেছে, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বাজার সৃষ্টিকারী) বিধিমালা, ২০১৭-এর আওতায় বি রিচ লিমিটেডকে বাজার সৃষ্টিকারী নিবন্ধন সনদ প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসইসি।

এ প্রসঙ্গে বি রিচ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী রফিকুল হাসানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি অনানুষ্ঠানিকভাবে বিষয়টি জেনেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন। মার্কেট মেকারের বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘বিশ্ব পুঁজিবাজারে এটা বহুল ব্যবহৃত হলেও বাংলাদেশে এটা একেবারেই নতুর কনসেপ্ট। মার্কেট মেকারের দায়িত্ব পালনের বিষয়টি অনেক চ্যালেঞ্জিং। যেকোনো একটি শেয়ারের চাহিদা ও জোগান সৃষ্টি করার পাশাপাশি পর্যাপ্ত বায়ার ও সেলার তৈরি করা মার্কেট মেকারের কাজ। এতে করে শেয়ারের লিকুইডিটি বাড়বে।’ একজন মার্কেট মেকার একই সঙ্গে পাঁচটি স্ক্রিপ্ট নিয়ে কাজ করতে পারবে বলে তিনি জানান।

মার্কেট মেকার হচ্ছে এমন একটি প্রতিষ্ঠান, যেটি এক বা একাধিক কম্পানির শেয়ারের বাজার তৈরি করে থাকে। প্রতিষ্ঠানটি ওই শেয়ারের দামের একটি ঊর্ধ্বসীমা ঘোষণা করে, যে সীমা অতিক্রম করলে সে তার কাছে থাকা শেয়ার বিক্রি করবে। একইভাবে ওই শেয়ারের একটি নিম্নসীমা ঘোষণা করে, যে সীমায় নামলে সে ওই শেয়ার বাজার থেকে কিনে নেবে।

বি রিচ ছাড়াও পাইপলাইনে আরো কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে মার্কেট মেকার হিসেবে লাইসেন্স দেওয়ার চিন্তাভাবনা করছে বিএসইসি।

 

  

  31/Aug/21
  Source: thedailystar.net
  Be Rich got approval as first market maker for stock market

  

Be Rich Ltd, a stock broker of Chittagong Stock Exchange, has got approval as the country s first market maker for the stock market.

Market makers help keep the market functioning, meaning if anyone wants to sell a bond, they are there to buy it.
Similarly, if anyone wants to buy a stock, they are there to have that stock available to sell.

Market makers are useful because they are always ready to buy and sell as long as the investor is willing to pay a specific price.

Market makers essentially act as wholesalers by buying and selling securities to satisfy the market and the prices they set reflect market supply and demand
Today, Bangladesh Securities and Exchange Commission (BSEC) decided to give licence to the institution following Bangladesh Securities and Exchange Commission (Market Maker) Rules, 2017.
The BSEC framed the market maker rules in 2000 and amended it in 2017. As per rules, the minimum capital requirement for becoming a market maker is Tk 10 crore in paid-up capital.

 

  

  30/Aug/21
  Source: arthosuchak.com
  দেশের প্রথম মার্কেট মেকার লাইসেন্স পাচ্ছে বি রিচ

  

দেশের পুঁজিবাজারে প্রথম বাজার সৃষ্টিকারী তথা মার্কেট মেকার (Market Maker) লাইসেন্স পেতে চলেছে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ট্রেকহোল্ডার বি রিচ লিমিটেড। পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) প্রতিষ্ঠানটিকে এই লাইসেন্স দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আজ রোববার (২৯ আগস্ট) অনুষ্ঠিত বিএসইসির ৭৮৯তম কমিশন সভায় এই অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

বিএসইসি সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বাজার সৃষ্টিকারী) বিধিমালা, ২০১৭ এর আওতায় বি রিচ লিমিটেডকে বাজার সৃষ্টিকারী নিবন্ধন সনদ প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসইসি।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করলে বি রিচ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী রফিকুল হাসান অর্থসূচককে বলেন, বিএসইসি আমাদেরকে বাজার সৃষ্টিকারী লাইসেন্স দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে অনানুষ্ঠানিকভাবে জেনেছে। বিএসইসির কাছ থেকে আনুষ্ঠানিক চিঠি পেতে হয়তো একটু সময় লাগবে।



তিনি বলেন, মার্কেট মেকারের দায়িত্ব পালনের বিষয়টি অনেক চ্যালেঞ্জিং। কারণ এই বিষয়টি দেশের বাজারে একেবারেই নতুন। এই বিষয়ে আমাদের যেমন কোনো অভিজ্ঞতা নেই, অন্য কোনো প্রতিষ্ঠানেরও তা নেই। কনসেন্ট লেটার দেওয়ার সময় বিএসইসি নিশ্চয়ই আমাদের নানা নির্দেশনা দেবে। স্টক এক্সচেঞ্জও আমাদের কিছু গাইডলাইন দেবে। বিএসইসি ও স্টক এক্সচেঞ্জের গাইডলাইন অনুসারে আমরা আমাদের দায়িত্ব পালন করবো।



তিনি আরও বলেন, দেশের প্রথম বাজার সৃষ্টিকারী লাইসেন্স দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে বিএসইসি আমাদেরকে ইতিহাসের একটি অংশ হওয়ার সুযোগ দিয়েছে। আমাদের প্রতি কমিশনের এই আস্থার পরিপূর্ণ মর্যাদা রাখতে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাবো।

উল্লেখ, মার্কেট মেকার হচ্ছে এমন একটি প্রতিষ্ঠান, যেটি এক বা একাধিক কোম্পানির শেয়ারের বাজার তৈরি করে থাকে। প্রতিষ্ঠানটি ওই শেয়ারের দামের একটি উর্ধসীমা ঘোষণা করে, যে সীমা অতিক্রম করলে সে তার কাছে থাকা শেয়ার বিক্রি করবে। একইভাবে ওই শেয়ারের একটি নিম্নসীমা উল্লেখ ঘোষণা করে, যে সীমায় নামলে সে ওই শেয়ার বাজার থেকে কিনে নেবে।

মার্কেট মেকার পুঁজিবাজারের স্থিতিশীলতা রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে।

 

  

  29/Aug/21
  Source: sharebazarnews.com
  বি রিচকে বাজার সৃষ্টিকারী নিবন্ধন সনদ প্রদানের সিদ্ধান্ত

  

চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) ট্রেকহোল্ডার বি রিচ লিমিটেকে বাজার সৃষ্টিকারী হিসেবে নিবন্ধন সনদ প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

রোববার (২৯ আগস্ট) বিএসইসির ৭৮৯তম সভায় এই অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বাজার সৃষ্টিকারী) বিধিমালা, ২০১৭ এর আওতায় বি রিচ লিমিটিকে বাজার সৃষ্টিকারী নিবন্ধন সনদ প্রদানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিএসইসি।

 

  

  21/Jun/21
  Source: businesshour24.com
  আরও ১৬ ট্রেক অনুমোদন দিল বিএসইসি

  

দ্বিতীয় দফায় সিকিউরিটিজ বেচা-কেনার জন্য আরও ১৬ ট্রেডিং রাইট এনটাইটেলমেন্ট সার্টিফিকেটস (ট্রেক) অনুমোদন দিয়েছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। সোমবার (২১ জুন) এ সংক্রান্ত চিঠি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জকে (ডিএসই) দিয়েছে কমিশন।

অনুমোদন পাওয়া কোম্পানিগুলো হল- আমার সিকিউরিটিজ, ব্যাং জি জিও টেক্সটাইল, মিনহার সিকিউরিটিজ, বিপ্লব হোল্ডিংস, এসোসিয়েটেড ক্যাপিটাল সিকিউরিটিজ, বি রিচ, কলম্বিয়া শেয়ার, রহিমা ইক্যুইটি, এমকেএম সিকিউরিটিজ, স্মার্ট শেয়ার, বিনিময় সিকিউরিটিজ, রিলিফ এক্সচেঞ্জ, এম্পেরর সিকিউরিটিজ, এনওয়াই ট্রেডিং, বি অ্যান্ড বিএসএস ট্রেডিং ও ব্রিজ স্টক অ্যান্ড ব্রোকারেজ।

এর আগে প্রথম দফায় গত ১৯ মে ৩০ ট্রেক অনুমোদন দেয় বিএসইসি।

বিএসইসির ট্রেক রুলস অনুযায়ি, প্রতিটি ট্রেকের জন্য নিবন্ধন ফি ১ কোটি টাকা। এছাড়া এই ট্রেক পাওয়ার জন্য ১ লাখ টাকা ফিসহ এক্সচেঞ্জে আবেদন করতে হয়।

এছাড়া ট্রেক নেওয়ার জন্য কমপক্ষে ৫ কোটি টাকার পরিশোধিত মূলধন থাকতে হবে এবং স্টক এক্সচেঞ্জে ৩ কোটি টাকা জামানত দেওয়ার বিধান রয়েছে। তবে বিদেশীদের সঙ্গে যৌথভাবে ট্রেক নেওয়ার ক্ষেত্রে পরিশোধিত মূলধন ৮ কোটি টাকা এবং শুধুমাত্র বিদেশীদের ক্ষেত্রে ১০ কোটি টাকার কথা বলা হয়েছে। আর জামানতের ক্ষেত্রে বিদেশীদের সঙ্গে যৌথভাবে ট্রেক নেওয়ার জন্য ৪ কোটি টাকা এবং শুধুমাত্র বিদেশীদের জন্য ৫ কোটি টাকার কথা বলা হয়েছে। আর ট্রেকের বার্ষিক ফি হিসেবে ১ লাখ টাকার কথা বলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, কোম্পানি, সংবিধিবদ্ধ সংস্থা বা কমিশনের অনুমোদিত কোন প্রতিষ্ঠান স্টক এক্সচেঞ্জের ট্রেক কিনতে পারবেন। গ্রাহকদের পক্ষে শেয়ার বেচা-কেনা করে দেওয়ার ব্যবসা করতে এই ট্রেক পাওয়া যাবে। তবে এই ট্রেকের মালিক স্টক এক্সচেঞ্জের শেয়ারহোল্ডার হবেন না। শুধুমাত্র শেয়ার ও ইউনিট বেচা-কেনা করার সুযোগ পাবেন। কোন প্রতিষ্ঠান ট্রেক পেলে তা হস্তান্তর করা যাবে না। আবার নিবন্ধন পাওয়ার এক বছরের মধ্যে সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (স্টক ডিলার, স্টক ব্রোকার ও অনুমোদিত প্রতিনিধি) বিধিমালা ২০০০ অনুযায়ী স্টক-ডিলার বা স্টক-ব্রোকার’র সনদ নিতে হবে। এই সনদ নেয়ার ৬ মাসের মধ্যে ব্যবসা শুরু করতে না পারলে ট্রেক বাতিল হয়ে যাবে।